তারিখ : ২৭ মে ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইলে এক মণ ধানের দামে একজন শ্রমিকের মুজুরী

নান্দাইলে এক মণ ধানের দামে একজন শ্রমিকের মুজুরী,অত:পর শ্রমিক সংকট    
[ভালুকা ডট কম : ০৭ মে]
এক মণ ধানের দামে একজন শ্রমিকের মুজুরী দিলেও শ্রমিক সংকটে পড়েছে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার কৃষকরা। চলতি বোরো মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন হলেও শ্রমিক সংকটে থাকায় ধান কাটা পিছেয়ে পড়ছে। এতে করে কৃষকরা চরম হতাশায় ভোগছে। দিনের আবহাওয়া পরিবর্তনে বৃষ্টি-ঝড় হলে তলিয়ে যেতে পারে মাঠের পাকা ধান।

উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নেই চলছে বোরো ধান কাটার মৌসুম। তবে শ্রমিক সংকট থাকায় কৃষক পরিবারের লোকজন ও স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীরাও ধান কেটে ঘরে তুলতে কাজ করছে। দিন দিন শ্রমিকের মুজুরি বৃদ্ধি পাওয়ায় এক মণ ধান বিক্রি করেও একজন শ্রমিকের মুজুরীর মিলছে না। উপজেলার ঝালুয়া বাজার কমলার হাটে গিয়ে দেখা গেছে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা শ্রমিকরা গৃহস্থতের কাছে বেশি টাকা মজুরী আবদার করছে। একজন শ্রমিকের দুই বেলা খাবারসহ দৈনিক মজুরি দিতে হচ্ছে ৫ থেকে ৬শত টাকা। অন্যান্য খরচসহ কৃষকের ধান কাটা ও মাড়াইয়ে প্রতি মণে খরচ হচ্ছে প্রায় ৮০০ টাকা। অথচ বর্তমান বাজারে ধান বিক্রি হচ্ছে  ৫শত থেকে ৬৫০ টাকা মণ।

গাংগাইল ইউনিয়নের কৃষক শফিকুল ইসলাম, সালাম ও মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের কৃষক এরশাদ শেখ, ও রাজগাতি ইউনিয়নের কৃষক মজিবুর রহমান সহ অনেকেই জানান, বর্তমানে ধানের বাজার মূল্য অনন্য বছরের চেয়ে অনেক কম থাকায় আমাদের লোকসান গুণতে হচ্ছে। প্রতিমণ ধান আবাদে খরচ হচ্ছে ৮শত থেকে ৮৫০টাকা। অথচ বিক্রি করতে হচ্ছে ৫শত থেকে ৬শত’ টাকা। এতে করে লাভের চেয়ে লোকসানেই বেশি হচ্ছে। এভাবে যদি শ্রমিকের মজুরী বৃদ্ধি পেতে থাকে তাহলে ভবিষ্যতে বোরো আবাদ চাষ করা বন্ধ করে দিতে হবে ।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

কৃষি/শিল্প বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই