তারিখ : ২৬ জুন ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইলে সংখ্যালঘু পরিবারের মেয়ে অপহরণ

নান্দাইলে সংখ্যালঘু পরিবারের মেয়ে অপহরণ,৪জনের নামে থানায় মামলা
[ভালুকা ডট কম : ২৫ মে]
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের রামজীবনপুর গ্রামের পিন্টু কুমার দে’র কন্যা (১৯) কে জোরপূর্বক অপহরনের অভিযোগে নরসিংদী জেলার পলাশ থানায় নান্দাইল উপজেলার ৪জনের নামে একটি নিয়মিত অপহরন মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার বাদী পিন্টু কুমার দে জানান, তার মেয়ে নান্দাইল উপজেলার সমূত্ত জাহান মহিলা কলেজে ২০১৭সনে পড়াশুনা করার সময় নান্দাইল উপজেলার শিমুলাটিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল মন্নানের বিবাহিত পুত্র আল মিনার (৩২) প্রায়ই তাকে প্রেমের প্রস্তাব সহ নানা ভাবে ইভটিজিং করত। আল মিনারের অত্যাচারে তার পিতা পিন্টু কুমার দে মেয়েকে তার শ্বশুর বাড়ি নরসিংদী জেলার পলাশ থানার ভিরিন্দা গ্রামের সুখময় পালের বাড়িতে রেখে আসেন। বিগত ১০ মাস যাবৎ সে সেখানে মামার বাড়িতে অবস্থান করছিল।শুক্রবার আলমিনার ও তার সহযোগী আব্দুল মতিন, ইমরান মিয়া ও হাসিম উদ্দিন উক্ত মেয়েকে পূর্ব পরিকল্পতিভাবে জোরপূর্বক মাইক্রোবাস যোগে ভিরিন্দা গ্রাম থেকে অপহরন করে নিয়ে যায়।

উক্ত ঘটনায় পলাশ থানায় ৪জনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে জোরপূর্বক অপহরন ও সহযোগীতার অপরাধে একটি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে। মামলার বাদী পিন্টু কুমার দে তার মেয়েকে ফিরে পাওয়ার জন্য প্রশাসন সহ মানবাধিকার সংস্থার সহযোগীতা কামনা করেছেন। পলাশ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মকবুল হোসেন মোল্লা মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এবং উপ-পরিদর্শক (এসআই) এবি সিদ্দিক মামলাটি তদন্ত করছেন বলে জানান।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই