তারিখ : ২৫ জানুয়ারী ২০২০, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁ বিসিক শিল্প নগরীর রাস্তা বেহাল

নওগাঁ বিসিক শিল্প নগরীর রাস্তা বেহাল
[ভালুকা ডট কম : ০৯ ডিসেম্বর]
নওগাঁয় বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) এলাকার রাস্তা দীর্ঘদিনে সংস্কার না হওয়ায় বেহাল হয়ে পড়েছে। এছাড়া পানি নিষ্কাশনের যথেষ্ট ব্যবস্থা না থাকায় ড্রেনে ময়লা জমে বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বদ্ধ পানিতে মশা জন্মে শিল্প নগরী এলাকায় মশার উৎপাত বেড়েছে।

জানা গেছে, ২০০০ সালে নওগাঁ শহরে প্রবেশ মুখে শালুকা নামক স্থানে এই শিল্প নগরী গড়ে তোলা হয়। সেখানে ১৫ দশমিক ৭৫ একর জমির উপর দুই কোটি ৮৪ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সে সময় অবকাঠামো তৈরি করা হয়। যেখানে ৮২টি প্লট রয়েছে। এর মধ্যে শিল্প ইউনিট রয়েছে ৫৩টি। রাস্তার পরিমাণ হচ্ছে ৩ দশমিক শূন্য ৭একর। শিল্প নগরীর ভিতরে নির্মানকৃত রাস্তা দির্ঘদিন যাবৎ কোন রকম সংস্কার করা হয়নি। সড়কগুলো দীর্ঘ সময়ে সংস্কার না হওয়ায় কার্পেটিং উঠে গিয়ে এখন খানা খন্দে পরিনত হয়েছে। কিছু কিছু জায়গায় কার্পেটিং উঠে গিয়ে মাটি বেরিয়ে এসেছে। গর্তগুলোতে বর্ষা মৌসুমে পানি জমে থাকে। রাস্তার বিভিন্ন স্থানে পানি জমে মালামাল পরিবহনের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ভারী যানবাহন চলাচল করায় রাস্তা দেবে গেছে।

অপরদিকে, ড্রেনেজ ব্যবস্থা দুর্বল। ফলে পয়ঃ নিষ্কাশনের যথেষ্ট ব্যবস্থা না থাকায় বেড়েছে মশার উপদ্রপ। কারখানা থেকে ময়লা আর্বজনা ড্রেনে জমে পানি বন্ধ হয়ে থাকে। বর্ষা মৌসুমে পানির চাপ বেশি হলে রাস্তাগুলো ডুবে প্লাবিত হয়ে যায়। রাস্তা সংস্কার সহ ড্রেনেজ ব্যবস্থা উন্নত করার দাবী জানিয়েছেন শিল্প নগরীর উদ্যোক্তারা।

প্যারাগন এগ্রো ইঞ্জিনিয়ার এর মালিক গোলাম মোস্তফা বলেন, ২০১৫ সালে ৬ হাজার স্কয়ার ফুটের (প্লট-এ-১০) জায়গা বরাদ্দ নিয়ে কৃষি সেচ যন্ত্র তৈরী ও যন্ত্রাংশ মেরামতের কাজ করছেন। শিল্প নগরী এলাকায় পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টি হলে ডুবে যায়। ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভাল না হওয়ায় মশার উৎপাতে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। ময়লা আর্বজনা ছড়িয়ে ছিটিয়ে ফেলে রাখা হয়। বলতে গেলে নাজুক অবস্থা।

বিসিক শিল্প নগরীর উপ-ব্যবস্থাপক (ভারপ্রাপ্ত) মো: শামীম হোসেন বলেন, চলতি অর্থ বছরে ৪৯৫ ফুট রাস্তা সংস্কার করা হচ্ছে। যার বরাদ্দের পরিমাণ ১৭ লক্ষ টাকা। এরমধ্যে ৫শতাংশ কমে ১৬ লাখ ১৫ হাজার টাকায় ব্যয়ে কাজ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে সোলিং কাজ প্রায় শেষ এবং কার্পেটিংয়ের অপেক্ষায়। এছাড়া আগামী অর্থ বছরে একই পরিমান রাস্তা সংস্কারে বরাদ্দ পাওয়া গেছে। শুধু টেন্ডারের অপেক্ষা।

তিনি বলেন, ড্রেনেজ ব্যবস্থার জন্য প্রতি অর্থ বছরে মাত্র ১০ হাজার টাকা বরাদ্দ থাকে। এ স্বল্প টাকায় পুরো ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কার করা সম্ভব হয়না। তবে মুল ড্রেন সংস্কার করা হয় যেন জলাবদ্ধতা না থাকে। এছাড়া মজিব বর্ষ উপলক্ষে অফিস ও শিল্প নগরী পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই