তারিখ : ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলা

বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলা
[ভালুকা ডট কম : ২১ জানুয়ারী]
আজ মঙ্গলবার রাজধানীর গাবতলী এলাকায় নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর এক দফা হামলা হয়েছে। হামলায় তিনি আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আজ বেলা ১১টার দিকে তাবিথ গাবতলী বাসস্ট্যান্ডের পেছনে বাজারপাড়া এলাকায় নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন।এলাকাটি উত্তর সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যে পড়েছে। গণসংযোগ শুরুর পরপরই লাঠিসোঁটা নিয়ে তাঁদের পেছন থেকে হামলা করেন একদল লোক। তাঁরা তাবিথ ও তাঁর সঙ্গীদের ওপর ঢিল ছোড়েন। কয়েকটি ঢিল তাবিথের গায়ে ও মাথায় লাগে। এতে তাবিথসহ তাঁর সঙ্গে থাকা ১০ থেকে ১২ জন কর্মী-সমর্থক আহত হন।ঘটনাস্থলে পুলিশ ছিল। একপর্যায়ে তারা হামলাকারী ও তাবিথের কর্মী-সমর্থকদের মাঝে দাঁড়িয়ে যায়। তারা হামলাকারীদের ঠেকানোর চেষ্টা করে।

হামলার পরপরই রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাবিথ অভিযোগ করেন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ-সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী মুজিব সারোয়ারের (ঠেলাগাড়ি প্রতীক) নেতৃত্বে এই হামলা হয়। তাবিথের বক্তব্য শেষ হতে না হতেই আবার ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে তাঁদের ওপর হামলা করে প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জন ব্যক্তি।

নির্বাচনী সমাবেশে অংশ নিয়ে ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলা প্রসঙ্গে বলেছেন, তাঁরা নিজেরা সংঘর্ষ বাধাতে পারেন।অনুরুপভাবে , তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মন্তব্যা করেছেন, বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনি প্রচারণায় হামলা ষড়যন্ত্রের অংশ হতে পারে।

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারী) সচিবালয়ের তথ্য মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির নবনির্বাচিত পরিষদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ  বলেছেন, আমি মনে করি নির্বাচনি পরিবেশ ঘোলাটে করার জন্য একটি পক্ষ সক্রিয়। এটি সেই পক্ষেরই কারসাজি কিনা সেটি খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। আর বিএনপির প্রথম থেকেই প্রচেষ্টা হচ্ছে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা। সুতরাং নানা ধরনের ঘটনা প্রবাহের মধ্য দিয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার যে প্রক্রিয়া সেই প্রক্রিয়ারও অংশ কিনা সেটিও খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।পৃথিবীর অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশেও সরকারি প্রোটকল বাদ দিয়ে প্রচারণায় অংশ নেওয়া যায়। আমাদের দেশে আমরা পারছি না। এটি বরং বিএনপিকে সুবিধাজনক অবস্থা দিয়েছে। সুতরাং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডটা তাদের পক্ষে চলে গেছে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নির্বাচন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৩১ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই