তারিখ : ২৪ অক্টোবর ২০২০, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

ভালুকার করোনা আপডেট

২৯ জুন ২০২০, সোমবার
আক্রান্ত
২৪ ঘন্টা মোট
৫ জন ২২৯ জন
সুস্থ
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৮২ জন
মৃত্যু
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৩ জন

বিস্তারিত বিষয়

কয়েকটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

কোভিড-১৯ সনদ নিয়ে জালিয়াতি;কয়েকটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা
[ভালুকা ডট কম : ০৯ জুলাই]
কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে মুক্ত বলে ভুয়া মেডিকেল সার্টিফিকেট নিয়ে সম্প্রতি বেশ কিছু বাংলাদেশি নাগরিক বিদেশে গিয়ে করোনা পজিটিভ বলে শনাক্ত হবার কারণে বেশ কয়েকটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।প্রথমে জাপান তারপর কোরিয়া ও সর্বশেষ ইতালি বংলাদেশি যাত্রীদের ব্যাপারে এরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এ অবস্থায় বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে নেয়া কোভিড-১৯ নেগেটিভ সনদের গ্রহণযোগ্যতা নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে বহির্বিশ্বে।

কোভিড-১৯ নেগেটিভ সনদ নিয়ে সম্প্রতি ইতালিতে যাওয়া বাংলাদেশিদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এ ঘটনায় বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের ফ্লাইট এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে ইতালি সরকার। সর্বশেষ বুধবার ঢাকা থেকে রোমে যাওয়া ১২৫ বাংলাদেশীকে বিমানবন্দর থেকেই ফেরত পাঠানো হয়েছে। কাতার এয়ারওয়েজের যে ফ্লাইটেই বাংলাদেশি যাত্রীরা রোমের গিয়েছিল সেই ফ্লাইটেই তাদের দোহায় ফিরে আসতে হয়েছে।

এরকম অবস্থায়, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মন্তব্য করেছেন যে, মহামারি করোনাভাইরাসে সংক্রমণের তথ্য গোপন রাখায় বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।

গতকাল বুধবার সকালে তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন,কিছু মানুষ সংক্রমণ লুকিয়ে তথ্য গোপন করে চলাফেরা করছেন, আবার কেউ করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে বিদেশে গিয়ে বিমানবন্দরে পজিটিভ হিসেবে চিহ্নিত হচ্ছে। সত্য গোপন রেখে বিদেশে গিয়ে করোনা শনাক্ত হবার কারণে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট  হচ্ছে। এভাবে কিছু লোকের জন্য লাখ লাখ প্রবাসীকে অবিশ্বাস আর অনিশ্চয়তার আঁধারে ঠেলে দেয়া হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে আজ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন জানিয়েছেন, আগামীতে কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট ছাড়া কেউই বিমানে উঠতে পারবে না।  এখন থেকে শুধু একটি মাত্র অনুমোদিত  প্রতিষ্ঠান থেকে এ সার্টিফিকেট নিতে হবে।

ইমিগ্রেশনের সূত্র বলেছে, ১ জুন থেকে ৬ জুলাই পর্যন্ত বিমানের একাধিক ভাড়া করা ফ্লাইটে ইতালি, জাপান, পর্তুগাল, স্পেন গেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এর মধ্যে শুধু ইতালিতেই গেছে পাঁচটি ফ্লাইট। এসব ফ্লাইটে ১ হাজার ৩৬১ জন বাংলাদেশি গেছেন। সর্বশেষ ৬ জুলাই ২৭৬ জন যাত্রী নিয়ে রোমে যাওয়ার পর ২১ বাংলাদেশির শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এ ঘটনায় আগামী এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের ফ্লাইট নিষিদ্ধ করেছে ইতালি। এই নিষেধাজ্ঞার সময় কোনো চার্টার্ড ফ্লাইটও বাংলাদেশ থেকে যেতে পারবে না বলে ইতালি জানিয়ে দিয়েছে।

বেবিচকের একজন কর্মকর্তা জানান, আগাম সতর্কতা হিসেবে তুরস্ক সরকার বাংলাদেশে টার্কিশ এয়ারলাইনসের ফ্লাইট চলাচল ১৫ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করেছে। দুবাই ও আবুধাবিতে ৬ জুলাই থেকে বিমান বাংলাদেশের ফ্লাইট চালুর সময় নির্ধারণ করা ছিল। কিন্তু আরব আমিরাত সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনার কারণে সেটি স্থগিত করে দিতে বাধ্য হয়েছে বিমান বাংলাদেশ।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ায় গত ২১ জানুয়ারি থেকে দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিশেষ সতর্কতা জারি করে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। ওই সময় থেকে বিদেশফেরত সব যাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়। একই সঙ্গে যাঁদের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ থাকবে, তাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম করে দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।এর পর দেশে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হবার পর গত ২১ মার্চ থেকে চীন ছাড়া বিশ্বের সব দেশের সঙ্গে সরাসরি যাত্রীবাহী ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেয় বেবিচক।

পরবর্তীতে  ১৫ জুন থেকে যুক্তরাজ্য ও কাতারের সঙ্গে বিমান চলাচলের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়। এরপর ২১ জুন এই তালিকায় যুক্ত হয় সংযুক্ত আরব আমিরাত। ৩ জুলাই থেকে ঢাকা-ইস্তাম্বুল পথে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি পায় টার্কিশ এয়ারলাইনস। তবে নিষেধাজ্ঞাকালীন বিশেষ ও ভাড়া করা ফ্লাইটে প্রবাসীরা দেশে আসতে শুরু করেন।#




সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই